বন্ধুর সাথে বউ বদলের পরও মিলিত হওয়া নিয়ে দ্বন্দ্ব, এরপর

বগুড়ার আদমদীঘিতে বন্ধুর ছুরিকাঘাতে বাদল হোসেন নামে এক যুবক খুন হয়েছে। বউ বদলের ঘটনাকে কেন্দ্র করে গত বুধবার রাতে উপজেলার সান্তাহার পৌরসভার লোকো কলোনী দিঘির পাড়ে এই হত্যাকাণ্ড ঘটে বলে জানিয়েছে পুলিশ।

পুলিশ জানায়, নওগাঁ সদরের চক তারতা এলাকার মৃত আলতাব আলীর ছেলে রেজাউল ইসলামের (৩৪) সঙ্গে সান্তাহার শহরের শহিদুল ইসলামের ছেলে বাদল হোসেনের জেলখানায় বন্ধুত্ব গড়ে ওঠে।

বাদল ও রেজাউল দুইজনই ছিনতাইসহ নানা অপরাধের সঙ্গে জড়িত। তাদের বিরুদ্ধে বিভিন্ন থানায় মামলা রয়েছে। বন্ধুত্বের একপর্যায়ে তারা দুইজন নিজেদের বউ বদল করার সিদ্ধান্ত নেয়।

ওই এলাকার স্থানীয় বাসিন্দা আবুল কাসেম বলেন, জেল থেকে বের হয়ে তিন মাস আগে তারা পরস্পর বউ বদল করে। বউ বদল হলেও রেজাউল তার আগের বউ ফাতেমার সঙ্গে গোপনে যোগাযোগ ও দৈহিক সম্পর্ক বজায় রাখে। মাঝেমধ্যে রেজাউল ফাতেমার সঙ্গে দেখা করার জন্য সান্তাহারে বাদলের বাসায় যাতায়াত করতো এবং মিলিত হতো।

১৫ মে বুধবার দুপুরে রেজাউল বাদলের বাসায় এসে তার বউয়ের সাথে মিলিত হলে হাতেনাতে ধরে ফেলে বাদল। এ নিয়ে দুইজনের মধ্যে বাকবিতণ্ডার সৃষ্টি হয়। পরে রাত ৯টার দিকে রেজাউল মোটরসাইকেল নিয়ে বাদলের বাসায় আসে এবং বাসায় ঢুকে বাদলকে ছুরিকাঘাত করে দ্রুত পালিয়ে যায়। প্রতিবেশীরা বাদলকে গুরুতর আহত অবস্থায় উদ্ধার করে বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করে দেয়। সেখানে রাতেই চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যায় বাদল।

এ ব্যাপারে সান্তাহার টাউন ফাঁড়ির পরিদর্শক আনিসুর রহমান বলেন, রেজাউলকে ধরার জন্য বিভিন্ন জায়গায় অভিযান চালানো হচ্ছে। তবে বৃহস্পতিবার পর্যন্ত থানায় কোনো মামলা হয়নি।

সূত্র- সময়ের কন্ঠসর